গৌরীশংকর মহাপাত্র: দৈনিক আবেশভূমি ডেক্স: এগরা কাঁথি: পূর্ব মেদিনীপুর। পটাশপুর-২এর দক্ষিণখাড় স্টার ক্লাবে “সময়ের মুখ” পত্রিকা আয়োজিত কবি হেমন্ত কুমার মাইতির পঞ্চাশটি প্রিয় গল্পের বই প্রকাশ ও সন্ধ্যা মাইতি স্মৃতি স্মারক সম্মাননা-২১ প্রদান অনুষ্ঠান হয় আজ রবিবার। মঙ্গলদীপ জ্বেলে ও সন্ধ্যা মাইতির প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদনে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন সভার সভাপতি খাড় হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক কমল কুমার পন্ডা ও আঞ্চলিক ইতিহাস

    গবেষক ও বহু গ্ৰন্থ প্রনেতা সাহিত্যিক মন্মথনাথ দাস। স্বাগত ভাষণে আয়োজক পত্রিকা সম্পাদক মানস কুমার মাইতি জানান- সন্ধ্যা মাইতি স্মৃতি সম্মাননা-২১ আঞ্চলিক ইতিহাস গবেষক ও সাহিত্যিক মন্মথনাথ দাস, সাংবাদিক ও পত্রিকা সম্পাদক গৌরীশংকর মহাপাত্র, বাচিকশিল্পী চক্রধর দাস, কবি ও কথা সাহিত্যিক
      বীরকুমার শী, আঞ্চলিক ইতিহাসবিদ শান্তিপদ নন্দ, সাহিত্যিক ও লিটিল ম‍্যাগাজিন সম্পাদক সুদর্শন খাটুয়া, প্রাবন্ধিক ড: কালিপদ প্রধান, শিক্ষক কমল কুমার পন্ডা, সাংবাদিক গোপাল পাত্র, সঞ্জীব আচার্য ও শুভম সিং, নাট্যকার ও অভিনেতা রমেশ চন্দ্র মুনীয়ান ,মৃৎশিল্পী পবন দাসসহ ১৩জনকে স্ব-স্ব ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য স্মৃতি স্মারক সম্মাননা প্রদান করার কথা। উপস্থিত সকলে সন্ধ্যা মাইতির কর্মময় জীবনের নানা দিক আলোচনা করে স্মৃতিচারণা করেন। ছিলেন সাহিত্যপ্রেমী নারায়ণ চন্দ্র মাইতি ,আনন্দ গোপাল আচার্য প্রমুখ।শেষে দীঘলপত্র প্রকাশিত ৫০ টি প্রিয় গল্পের বই উদ্বোধন করেন সাহিত্যিক মন্মথনাথ দাস। পুস্তক প্রকাশে সহযোগিতা
                      করেন গল্পকার হেমন্ত কুমার মাইতি ও প্রকাশক সুদর্শন খাটুয়া। এরপর ঘোষণা মত পুষ্পস্তবক, উত্তরীয় ও সুদৃশ্য স্মারক তুলে দিয়ে সম্মানিত করা হয় করা হয় বিশিষ্ট জন দের। স্টারক্লাব কলা কেন্দ্রের শিক্ষার্থীরা তাদের সাংস্কৃতিক
          দক্ষতা উপস্থাপন করে নাচ গান ও আবৃত্তির মাধ্যমে। বাচিকশিল্পী চক্রধর দাসের আবৃত্তির কোলাচ এক বিশেষ মাত্রা দান করে ।সমগ্র অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় বাচিকশিল্পী অলকেশ মাইতি। শেষে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান আয়োজক পত্রিকা সম্পাদক মানস কুমার   
            মাইতি।

            Share

            One thought on “দক্ষিণ খাড়ে গ্রন্থ প্রকাশ ও সন্ধ্যা মাইতি স্মৃতি স্মারক সম্মাননা জ্ঞাপন”

            1. Unique arrangements. Wonderful cultural programme. Nothing is impossible when cultured and dedicated persons take care of these kind of programme. Thanks to organiser and everyone connected to this.

            Leave a Reply

            Your email address will not be published.