নিজস্ব সাংবাদদাতা,এগরা :পূর্ব মেদিনীপুর : সারাদেশে দ্রব্যমূল্যবৃদ্ধিতে মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে।বিশেষ করে বুলবুল প্রাকৃতিক দুর্যোগের পরে সব্জী ও অানাজের অাকাশছোঁয়া দামে সাধারন মানুষের দমবন্ধ অবস্হা।কেজি পিছু অালু ২২/২৫ টাকা,বেগুন ৫o/৫৫ টাকা,পেঁয়াজ ৭o টাকা।অাদা,রসুন,পোস্ত সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দামে অাগুনের ছ্যাঁকা লাগার জোগাড়।

    পেট্রল-ডিজেল-কেরোসিন সহ অবশ্য ব্যবহার্য দ্রব্যের দামে মানুষের প্রানান্ত অবস্হা।গোদের উপর বিষফোঁড়া র মত সব্জী – অানাজ- দ্রব্যসামগ্রী র সঠিক ওজন পরিমাপের উপর সরকারী কোন নিয়ন্ত্রন নেই বললেই চলে।এখন অাবার বিক্রিবাট্টা কেজির পরিবর্তে দরদাম ২৫o/৫ooগ্রাম পিছু হয়ে থাকে।দীর্ঘদিনের ব্যাবহৃত বাটখারা ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে ওজনের পরিমান কমে গেছে।ইলেকট্রনিক ওজন পরিমাপের যন্ত্রের যথার্থতা নিরূপনের কোন সরকারী উদ্যোগ নেই।পেট্রলপাম্পের মিটার পরীক্ষাও হয় না।রাজ্য সরকারের ওজন ও পরিমাপ দপ্তর/ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর নিধিরাম সর্দার।পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ওজন ও পরিমাপ দপ্তরের সরকারী কাঠামো লুপ্তপ্রায়। পরিদর্শক ও অন্যান্য কর্মী দীর্ঘদিন নিয়োগ হয় নি।পশ্চিম মেদিনীপুরের একজন অাধিকারিক নম: নম: করে অাংশিক সময়ের জন্য পূর্বমেদিনীপুর দপ্তরেরর বাতি জ্বালিয়ে রেখেছেন।নিয়মিত বাটখারা পরীক্ষা করে সীসা সীল না করার জন্য ও ওজন পাল্লা যাথার্থভাবে নিরূপন না করার জন্য ক্রেতাসাধারণ মাগ্গি-গণ্ডার বাজারে কমওজনের মালপত্র নিয়ে ঠকেই চলেছেন।সরকার নির্বিকার।

    যত খাঁড়ার ঘা সাধারন মানুষের উপরে।রাজ্য সরকারের ওজন ও পরিমাপ দপ্তরের পূর্ণাঙ্গ কাঠামো সুচারু করা ও নিয়মিত পরিদর্শনের মধ্য দিয়ে ক্রেতাসাধারণের অধিকার সুরক্ষা সম্বলিত দাবীপত্র জেলাশাসক কে ই-মেল মারফত পাঠিয়েছেন প্রাক্তন সহকারী সভাধিপতি মামুদ হোসেন।মামুদ হোসেন ক্রেতাসাধারণ কে ওজন ও পরিমাপের বিষয়ে সজাগ ও সতর্ক হওয়ার অাবেদন জানিয়েছেন

    Share

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *