গৌরীশংকর মহাপাত্র: এগরা কাঁথি : পূর্ব মেদিনীপুর। আজ মঙ্গলবার সকালে বৃষ্টি ও প্রবল বজ্রপাতে এগরা ও পটাশপুরে মাঠে কর্মরত দুই কৃষকের মৃত্যু ঘটে। ফাটল ধরে পটাশপুর-২এর খাড় হাইস্কুলে। বিবরণে জানা যায় সকালে এগরা -২এর দুবদা গ্রামে অরবিন্দ বেরা (৪০)সাইকেলে সার নিয়ে মাঠ যাওয়ার সময় বজ্রপাতে মৃত্যু হয়। দূরে কর্মরত তার স্ত্রী মীরা বেরা (৩২) এবং তার প্রতিবেশী কার্তিক বেরা (৪৮) আহত হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে এগরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক অরবিন্দ কে মৃত বলে ঘোষণা করে, অপর দুজন চিকিৎসাধীন। এগরা পুলিশ মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য কাঁথি হাসপাতালে পাঠায়। মৃত অরবিন্দের এক বিবাহিত মেয়ে ও এক ছেলে বর্তমান ।অপরদিকে পটাশপুর -২এর পটাশপুর পঞ্চায়েতের কানপুরে রামকৃষ্ণ পাইকারা (৩৮) এর মৃত্যু হয়।এদিন সকাল প্রায়১০ টার নাগাদ দিনমজুর রামকৃষ্ণ যখন নিজের মাঠে কাজ করছিল তখন বজ্রপাত ঘটে। সে ও তার কাকাতো ভাই প্রসেনজিৎ পাইকারা দুজনে মিলে কাজ করছিল, বাজ পড়ার একটু আগেই প্রসেনজিৎ বাড়ি চলে যায় । খবর পেয়ে পটাশপুর থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। মৃত রামকৃষ্ণের স্ত্রী নবম শ্রেণীর পদার্থ পাঠরতা এক মেয়ে ও সপ্তম শ্রেণীর পদার্থ এক ছেলে বর্তমান বিপিএল পরিবারভুক্ত দুই কৃষকের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে

এদিন বাজ পড়ে বিদ্যালয়ে ফাটল, ক্ষতিগ্রস্ত কম্পিউটার, সোলার সিস্টেম সহ একাধিক জিনিসপত্র। ঘটনাটি ঘটে পটাশপুর-২এর খাড় উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কুমার পন্ডা জানান বাজ পড়ে পুরো বিল্ডিং মাঝখান থেকে ফাটল ধরেছে এবং কম্পিউটার সোলার সমস্তকিছুই নষ্ট হয়ে যায়।

    স্কুল বন্ধ হওয়ার কারণে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।ইতিমধ্যেই প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন প্রধান শিক্ষক। আগামীকাল ইলেকট্রিক ওয়ারিং, সিভিল কনস্ট্রাকশন ও কম্পিউটার রিপেয়ারিং এর ক্ষয়ক্ষতির এস্টিমেট করে প্রয়োজনীয় মেরামতির ব‍্যাবস্থা নেবেন।

      Share

      Leave a Reply

      Your email address will not be published.